কুমিল্লায় ভুয়া চিকিৎসকের ৩ মাসের কারাদণ্ড, হাসপাতাল বন্ধ

লেখক: নেকবর হোসেন
প্রকাশ: ৬ মাস আগে

Spread the love

কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে এক ভুয়া চিকিৎসককে তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া অনুমোদন না থাকায় ওই ভুয়া চিকিৎসকের মালিকানাধীন হাসপাতালটি বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
বুধবার (২৪ জানুয়ারি) এই অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। উপজেলার কালির বাজার ইউনিয়নের কালির বাজার মডেল হাসপাতালটি পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত বন্ধ ঘোষণা করা হয়।
বুধবার সন্ধ্যায় কুমিল্লা জেলা প্রশাসন থেকে জানানো হয়েছে, ওই প্রতিষ্ঠানটির মালিক লিটন দেবনাথকে ক্লিনিকটিতে অবৈধভাবে ফার্মেসি, অপারেশন, রোগী ভর্তি, রক্ত সঞ্চালন, অনুমোদনবিহীন রক্ত পরীক্ষা, সরকার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে অতিরিক্ত অর্থ আদায়, কোনো চিকিৎসক বা নার্সের নিয়োগ না থাকা এবং নিজেই চিকিৎসক সেজে রোগীদের প্রেসক্রিপশন প্যাডে চিকিৎসা প্রদান করার কারণে তাৎক্ষণিক গ্রেপ্তার করে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রোমেন শর্মা। এ সময় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আহমেদ মঞ্জুরুল ইসলাম, কুমিল্লা সিভিল সার্জন অফিসের মেডিক্যাল অফিসার ডা. মো. মেহেদী হাসানসহ পুলিশ সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রোমেন শর্মা বলেন, ‘বেসরকারি ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারসমূহের কার্যক্রম নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করছে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা।
কোনো রকমের অসংগতি পেলে উপজেলা প্রশাসনকে জানানো হলে আমরা আইন ও বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নিচ্ছি, প্রযোজ্য ক্ষেত্রে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে।

  • কুমিল্লা