আগরতলায় ভারত বাংলাদেশ স্পোর্টস ফ্রেন্ডশীপ ফোরামের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক

লেখক: স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ১ মাস আগে

Spread the love

ক্রীড়ার মানোন্নয়নে এবং বিভিন্ন ডিসিপ্লিনে ক্রীড়া প্রতিযোগিত আয়োজনের লক্ষে ভারত-বাংলাদেশ স্পোর্টস ফ্রেন্ডশীপ ফোরামের দ্বিপাক্ষিক বৈঠক ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। একই সাথে বাংলাদেশের ঢাকা ও কুমিল্লা জেলার ক্রীড়া সংগঠকদের সম্বর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। ভারত – বাংলাদেশ স্পোর্টস ফ্রেন্ডশীপ ফোরাম তাদের “খেলতে চাই” শ্লোগান নিয়ে এবার মাঠে নামছে ভারত বাংলাদেশ স্পোর্টস ফ্রেন্ডশীপ ফোরাম। ৮ জুন (শনিবার) দুপুরে শহরের আগরতলা ক্লাব এ আয়োজিত ফোরামের এক গুরুত্বপূর্ণ দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এই “খেলতে চাই” শ্লোগান নিয়ে আগামী দিনের নতুন ক্রীড়া পরিকল্পনা গুলো বাস্তবায়ন করা নিয়ে আলোচনা ও বেশ কিছু সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। বৈঠকের সূচনা করেন ফোরামের চীফ উপদেষ্টা বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের উপ সচিব আশিকুর রহমান মিকু। বৈঠকে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রস্তাব পেশ করেন তিন। তাঁর মধ্যে অন্যতম হলো, আগরতলা থেকে ঢাকায় একটি শান্তি ব্যাটন রেলি সংগঠিত করা। হ্যান্ডবল, ভলিবল, কাবাডি, অ্যাথলেটিক্স, টেবিল টেনিস ও টেনিসের মতো ইভেন্ট কে আরও বেশি জনপ্রিয় করার জন্য ত্রিপুরা, কুমিল্লা ও বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা ভিত্তিক ক্রীড়া আসর আয়োজন করার। ভারত বাংলাদেশ স্পোর্টস ফ্রেন্ডশীপ ফোরামের বৈঠকে বাংলাদেশের কুমিল্লা ও ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের আগরতলার মধ্যে দ্রæত হ্যান্ডবল, ভলিবল, কাবাডি, অ্যাথলেটিক্স, টেবিল টেনিস ও টেনিসের টীম প্রেরণ করার সিদ্ধান্ত হয়। এছাড়া ত্রিপুরার ক্রীড়া মন্ত্রীর পরামর্শ নিয়ে আগামী দিনে ত্রিপুরা বাংলাদেশ গেমসের আয়োজন করা নিয়ে আলোচনা হয়। এছাড়াও ত্রিপুরা ও বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় স্পোর্টস মেডিসিন বিশেষজ্ঞদের নিয়ে স্বাস্থ্য বিষয়ে ক্যাম্প আয়োজন করার সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠকে অংশ নিয়ে কুমিল্লা জেলা স্পোর্টস এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহাসান ফারুক রোমেন প্রস্তাব দেন, আগামী দিনে কুমিল্লায় ক্রীড়া স্বাস্থ্য বিষয়ক ক্যাম্প আয়োজন করার, মার্শাল আর্ট-এ বিভিন্ন ইভেন্টে প্রতিযোগিতা আয়োজন করার। আলোচনায় অংশ নিয়ে ফোরামের সচিব সুজিত রায় বলেন, আমাদের আসল লক্ষ্য হচ্ছে ত্রিপুরার খেলাধূলার সার্বিক উন্নয়ন এবং দু-দেশের ক্রীড়া সম্পর্ক আরো মজবুত করা। পাশাপাশি বিভিন্ন ইভেন্টের রাজ্য জুড়ে খেলাধুলাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। তিনি বলেন আলোচনা হিসেবে আগামী দিনে রাজ্যের একটি টীম কুমিল্লা সফরে যাবে। ঐ টীমে ফিজিও, ডাক্তার, ক্রীড়া বিশেষজ্ঞ ও সুযোগ হলে একটা স্পোর্টস টীম পাঠানো হবে। তিনি আশা প্রকাশ করেন যে, প্রস্তাবিত ত্রিপুরা বাংলাদেশ গেমস আগামী দিনে রাজ্যের খেলাধূলার উন্নয়নে বিরাট ভূমিকা পালন করবে। আলোচনায় অংশ নিয়ে কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য দেলোয়ার হোসেন জাকির বলেন, ভারত-বাংলাদেশের গভীর বন্ধুত্বের সম্পর্ককে আরো দৃড় করতে এবং এ সম্পর্ককে এগিয়ে নিয়ে যেতে দুই দেশের মধ্যে ক্রীড়া প্রতিযোগিতা করতে হবে। বৈঠকে টিপুরার প্রথম অর্জুন মন্টু দেবনাথ, রাজ্য সরকারের বিশিষ্ট প্রশাসক অসীম সাহা, বিশিষ্ট চিকিৎসক কনক চৌধুরী, কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য সাংবাদিক দেলোয়ার হোসেন জাকির ও অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। এদিকে আজকের এই বৈঠকের আগে এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের উপ সচিব আশিকুর রহমান মিকু, কুমিল্লা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আহসান ফারুক রোমেন ও কুমিল্লার জেলা ক্রীড়া সংস্থার সদস্য দেলোয়ার হোসেন জাকির কে উষ্ণ সম্বর্ধনা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বাংলাদেশ হাইকমিশন প্রথম সচিব মোঃ আল আমিন, রাজ্যের বিশিষ্ট চিকিৎসক শিক্ষাবিদ ও সমাজসেবক কনক চৌধুরী, ত্রিপুরা স্পোর্টস কাউন্সিলের জয়েন্ট সেক্রেটারি স্বপন সাহা, ফিজিওথেরাপি সংস্থার বীরবর দেবনাথ, সিনিয়র ক্রীড়া সাংবাদিক সুপ্রভাত দেবনাথকেও সংবর্ধিত করা হয়েছে।

  • বাংলাদেশ
  • ভারত