‘প্রার্থীদের মধ্যে প্রতীক বরাদ্ধ’ বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়ায় পাড়া মহল্লায় জমে উঠেছে নির্বাচনী প্রচারণা

লেখক: স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশ: ২ সপ্তাহ আগে

Spread the love

গত ১৩ মে কুমিল্লার তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থীদের মধ্যে প্রতিক বরাদ্ধ দেওয়া হয়েছে। প্রতিক বরাদ্ধ পাওয়ার পর বুড়িচং-ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের কর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে আনন্দ উচ্ছ্বাস দেখা গিয়েছে। প্রতিক বরাদ্ধ পাওয়ার পর পছন্দের প্রার্থীর প্রতিক নিয়ে বুড়িচং ও ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানে মিছিল করতে দেখা গেছে। দুপুরের পর থেকে রাত পর্যন্ত বিভিন্ন প্রার্থীর মাইকিংয়ের মাধ্যমে প্রচার প্রচারণা করতে দেখা গেছে এবং বিভিন্ন স্থানে রঙিণ ও সাদা কালো পোষ্টার ঝুলতে দেখা গেছে। প্রত্যেক প্রার্থীর কর্মী ও পোষ্টার এবং লিফলেট নিয়ে ভোটারদের বাড়ী বাড়ী চষে বেড়াচ্ছে। বুড়িচং উপজেলায় ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছে। বুড়িচং উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আখলাক হায়দার ঘোড়া প্রতিক পেয়েছেন। তারই আপন ছোট ভাই সাবেক কুমিল্লা জেলা পরিষদের সদস্য তারেক হায়দার টেলিফোন প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন। ভোগলিক অবস্থান থেকে গোমতী নদীর কারণে বুড়িচং উপজেলাটি দুটি ভাগে বিভক্ত রয়েছে। নদীর দুই পাড়ে ২ জন করে ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। গোমতী নদীর পশ্চিম পাড়ে আপন দুই ভাই প্রতিদ্ব›িদ্বতা করছেন এবং গোমতী নদীর পূর্ব পাড়ে ২ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী রয়েছেন। গোমতীর পূর্ব পাড়ের প্রার্থীদের মধ্যে বুড়িচং উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রেজাউল করিম দোয়াত কলম প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন এবং উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার বাছির খান আনারস প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন। পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যানদের মধ্যে গোমতীর পশ্চিম পাড়ে ১ জন প্রার্থী রয়েছেন এবং গোমতীর পূর্ব পাড়ে ২ জন প্রার্থী রয়েছেন। গোমতীর পশ্চিম পাড়ের পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার আলাউদ্দিন উড়োজাহাজ প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন এবং গোমতী নদীর পূর্ব পাড়ের পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সিনিয়ার সহ-সভাপতি মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন মাইক প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন এবং মেজবাউল হক চৌধূরী আসিফ বই প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে ননদ ও ভাবী ছাড়া বুড়িচং উপজেলায় আর কোন প্রার্থী নেই। এদের মধ্যে ভাবী কুমিল্লা জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য অধ্যাপক লাভলী আক্তার ফুটবল প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন এবং ননদ বুড়িচং উপজেলা পরিষদের সাবেক মহিলা ভাইস চেয়াম্যান পান্না আক্তার কলস প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন। বুড়িচং উপজেলায় ৩টি পদে চেয়ারম্যান পদে ৪ জন, পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জনসহ মোট ৯ জন প্রার্থী প্রতিক বরাদ্ধ পাওয়ার পর উপজেলার বিভিন্ন পাড়া মহল্লায় উঠান বৈঠক ও গণসংযোগ করে ব্যস্ত সময় পার করছেন। এদিকে ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী হাজী জসিম উদ্দিন গত ১২ মে তার নিজের প্রার্থীতা প্রত্যাহার করায় প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছে ৪ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী। এদের মধ্যে উপজেলা আওয়ামীলীগ সমর্থিত প্রার্থী ব্যরিষ্টার সোহরাব খান চৌধূরী আনারস প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন, সাহেবাবাদ ডিগ্রি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি ও বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি’র ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার সাধারণ সম্পাদক সরকার জহিরুল হক মিঠুন টেলিফোন প্রতিক বরাদ্দ পেয়েছেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক প্রধান শিক্ষক মোঃ আমিনুল ইসলাম সুজন দোয়াত কলম প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন এবং নবনির্বাচিত সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মুহাম্মদ আবু জাহের এর ভাতিজা কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আবু তৈয়ব অপি ঘোড়া প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন। ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা পরিষদের পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান ৬জনের মধ্যে নাজমুল হাসান শরীফ চশমা প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন, মোহাম্মদ আক্রামুল ইসলাম টিউবওয়েল প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন , মাসুক সরকার বই প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন, সৈয়দ মেহেদী হাসান মাইক প্রতিক বরাদ্দ পেয়েছেন, মোঃ আবু মুসা টিয়া পাখি প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন, মোঃ অপু তালা প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন। ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়াম্যান পদে ৩ জনের মধ্যে সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোসাঃ তাহমিনা হক পপি হাঁস প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন, মোসাঃ শামীমা আক্তার চৌধূরী ফুটবল প্রতিক ও জাহান আরা বেগম কলম প্রতিক বরাদ্ধ পেয়েছেন। প্রতিক বরাদ্ধ পাওয়ার পর থেকে দুই উপজেলার প্রার্থীরা দিন রাত এক করে ভোটারদের বাড়ী বাড়ী ঘুরে বেড়াচ্ছেন। বুড়িচং ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার প্রত্যেকটি পাড়া মহল্লার চা দোকানে নির্বাচনের আমেজ ফুটে উঠেছে। প্রার্থীদের গণসংযোগ আর কর্মী সমর্থকের লিফলেট বিতরণের মাধ্যমে সরগম রয়েছে দুই উপজেলার পাড়ায় পাড়ায়। ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় বিএনপির প্রার্থী থাকলেও বুড়িচং উপজেলায় বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীর কোন প্রার্থী নির্বাচনী মাঠে নেই।

  • বুড়িচং
  • ব্রাহ্মণপাড়া